মুক্তামনি প্রসঙ্গ : চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

মুক্তামনি প্রসঙ্গ : চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

বিএনএ, ঢাকা, ১২ আগস্ট ২০১৭:  বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার মুক্তামণির ডান হাতের রক্তনালীর টিউমারের অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। অস্ত্রোপচারের পর সে ভালো আছে। তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে। তবে মুক্তামনির সুস্থ হতে আরও ছয়টি অস্ত্রোপচার করা লাগবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। শনিবার জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের দ্বিতীয় তলার অপরাশেন থিয়েটারে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা। সফল অপারেশনের জন্য চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অপারেশন শেষে বার্ন ইউনিটের ৩ তলায় এক সংবাদ সম্মেলনে বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের চিকিৎসক ডা. সামন্ত লাল সেন জানান, মুক্তামনির সুস্থ হতে আরও ছয়টি অস্ত্রোপচার করা লাগবে। তিনি বলেন, অপারেশন সফল হয়েছে। মুক্তামনি ভালো আছে। তার হাতের ডিজিজ পোরশন (রোগাক্রান্ত অংশ) কেটে ফেলতে আমরা সক্ষম হয়েছি। তবে এক অপারেশনেই এটা শেষ হবে না। আরও অন্তত ছয়টি অপারেশন করা লাগবে। তার জ্ঞান ফিরেছে, কথা বলেছে। এ সাফল্য আমাদের একার না। বার্ন ইউনিটসহ জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউট (এনআইসিভিডি) এর সমন্বিত সাফল্য। তার হাত ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসবে। প্রাথমিক সাফল্য বললেও এটা এখানেই শেষ নয়। ইটস লং ওয়ে টু গো।

এদিকে বার্ন ইউনিটের পরিচালক ডা. আবুল কালাম বলেন, অপারেশন থেকে পোস্ট অপারেটিভ (অপারেশন পরবর্তী) অবস্থা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাকে ৫-৬ সপ্তাহ পর্যবেক্ষণ করা হবে। অপারেশনের পর তার রক্তক্ষরণের সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, এটি মুক্তার প্রথম অপারেশন ছিল, তার আরও বেশ কয়েকটি অপারেশন লাগবে। প্রতি সপ্তাহে ১টা করে অপারেশন করা হবে। আপাতত তার হাতের টিউমারের সবটুকু মাংস কাটা হয়েছে। বুক ও ঘাড়ে এখনও রোগটি আছে। সেগুলো আস্তে আস্তে চিকিৎসা করা হবে। মুক্তাকে ঝুঁকিমুক্ত কখনোই বলা যাবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, তবে আজকের অপারেশনের কারণে ঝুঁকি আগের থেকে অনেকটা কমে গেছে।

মুক্তামনির আবারও এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তার হাতের বেশিরভাগ অংশটুকু ফেলে দিয়েছি। আমরা এটুকু বলতে পারি, হাতের রোগাক্রান্ত যেটুকু অংশ ফেলে দিয়েছি সেখানে আর এ রোগ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। পরবর্তী অস্ত্রোপচারের বিষয়ে তিনি বলেন, একেকজন মানুষের শরীরের মেকানিজম একেক রকম। ওর একটা অপারেশন হয়েছে। শরীরের কিছু ডিঅ্যারেজমেন্ট আছে। ওর শারীরিক অবস্থার ওপর নির্ভর করবে পরবর্তী অপারেশনের বিষয়টি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের পরিচালক ড. জুলফিকার লেনিন বলেন, মুক্তামনির ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী সব সময় খোঁজখবর রেখেছেন। তিনি আজকের (গতকালের অপারেশন) বিষয়ও সব কিছু জানেন। আমাদের দিক থেকে যতদিন প্রয়োজন হবে ততদিন সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হবে। এরপর চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে মুক্তামনির সফল অপারেশনের জন্য তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার  সকাল ৯টার দিকে মুক্তামনির অস্ত্রোপচার শুরু হয়। ২০ জন চিকিৎসকের একটি দল প্রায় তিন ঘন্টা মুক্তমনির হাতে সফল অস্ত্রোপচার করেন। অস্ত্রোপচার করে তার হাত থেকে তিন কেজি মাংসপি- ফেলে দেওয়া হয়েছে। এগুলো পরীক্ষার জন্য পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।
মা আমার ভয় করে : অপারেশন থিয়েটারে নেওয়ার পথে অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) নেওয়ার সময় মা আসমা খাতুনকে দেখে মুক্তামনি বলে ‘মা আমার ভয় করে’। মা তাকে আশ্বস্ত করে বলেন, তুমি এ পর্যন্ত যত দোয়া শিখছো সেগুলো পড়ো। ভয়ের কোনও কারণ নেই। পুরো দেশবাসী তোমার সঙ্গে আছে।

এসজিএন/এসকেকে

Share