বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে এলাকাবাসী’র হামলায় শ্রমিকরা ক্ষতিগ্রস্থ

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে এলাকাবাসী’র হামলায় শ্রমিকরা ক্ষতিগ্রস্থ

বিএনএ, দিনাজপুর, ১৫ মে: দিনাজপুরের পার্বতীপুর বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে আন্দোলনরত শ্রমিক ও ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী’র হামলায় খনি’র প্রায় ১০ জন কর্মকর্তা আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৬জনকে ভর্তি করা হয়েছে দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের ১৩ দফা দাবী বাস্তবায়নের দাবীতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি’র ৩য় দিনে খনি’র কয়েকজন কর্মকর্তা কাজে যোগদিতে সকাল সাড়ে ৯টায় খনিতে প্রবেশকালে এ ঘটনা ঘটে।

আন্দোলনরত শ্রমিকদের পাথর নিক্ষেপ ও লাঠি’র আঘাতে আহত হয় খনি’র প্রায় ১০ জন কর্মকর্তা। আহতদের মধ্যে বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং লিমিটিডের মহা ব্যবস্থাপক এ.বি.এম শামসুজ্জামান,ব্যবস্থাপক( প্রশাসন) সানাউল্লাহ্,ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) হাসান ইমাম,উপ-ব্যবস্থাপক(আইসিটি) কমল মল্লিক,সহকারী ব্যবস্থাপক (সার্কিট অপারেশন)সাজেদুল ইসলাম সাজু, সহকারী ব্যবস্থাপক (মাইনিং) জাহিদুর রহমানকে দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের ১৩ দফা ও খনি এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির আয়োজন ৬ দফা দাবীতে ৩য় দিনের মতো কর্মবিরতি পালন করছেন কয়লা খনি শ্রমিকরা।সেই সাথে দফায় দফায় মিছিল অব্যাহত রেখেছে তারা। খনির অভ্যন্তরে কোন শ্রমিকসহ কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রবেশ করতে দিচ্ছেন না ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসী ও আন্দোলনরত শ্রমিকরা। দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালবে বলে জানিয়েছেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদাক আবু সুফিয়ান ও ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাবাসীর পক্ষে আরিফুল ইসলাম সুমন। তারা বলেছেন, খনি কর্তৃপক্ষ দাবী মেনে না নেওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্ট কালের জন্য ধর্মঘট চলবে।

গত সোমবার বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির প্রধান ফটকের সামনে খনি এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির সাথে একাত্ত্বতা ঘোষণার করে দাবী আদায়ের লক্ষে খনি শ্রমিক কর্মচারীরা কর্মবিরতি পালন করছে। আজ মঙ্গলবার কর্মসূচী চলাকালে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন,শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ রবিউল ইসলাম (রবি), খনি এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান মিজান, মশিউর রহমান বুলবুলসহ আরো অনেকে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, খনির আবাসিক এলাকাসহ কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারী তিনদিন যাবৎ অবরুদ্ধ অবস্থায় খনি অভ্যন্তরে অবস্থান করছেন। শ্রমিকরা খনি এলাকার চতুর্দিকে পাহারা বসিয়ে রাখায় ভেতরে প্রবেশ করতে পারছেন না কেউ। বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের ১৩ দফা ও খনি এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রামের সমন্বয় কমিটির আয়োজন ৬ দফা দাবীতে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি’র ৩য় দিনে খনি’র কয়েকজন কর্মকর্তা কাজে যোগদিতে খনিতে প্রবেশকালে এ ঘটনা ঘটে।

প্রতিনিধি: শাহ্ আলম শাহী/এফএএস/এসজিএন

Share