রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন

আজ রাত থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ

ilish

বিএনএ,ডেস্ক। আজ শনিবার রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে উপকূলীয় সাত হাজার বর্গকিলোমিটার জলসীমায় ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত মোট  ২২ দিন এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। মা ইলিশের প্রজনন নিরাপদ করার জন্য বিগত কয়েক বছরের মতো এবারও আশ্বিনের পূর্ণিমা লক্ষ্য রেখে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মৎস্য অধিদপ্তর।

এ সময় ইলিশ আহরণ, ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন ও মজুদ পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে মৎস্য অধিদপ্তর কোস্ট গার্ড, নৌপুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

মৎস্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিগত বছরগুলোতে যেসব এলাকায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে, সেসব এলাকায় এবার বাড়তি নজরদারি রাখা হবে। এ সময় তালিকাভুক্ত প্রত্যেক জেলেকে ২০ কেজি করে চাল দেয়া হবে।

নিষেধাজ্ঞা আরোপিত প্রজনন পয়েন্টগুলো যথাক্রমে উত্তর-পূর্বে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার শাহেরখালী থেকে হাইতকান্দী, দক্ষিণ-পূর্বে কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলার উত্তর কুতুবদিয়া-গণ্ডমারা পয়েন্ট। উত্তর-পশ্চিমে ভোলার তজুমুদ্দিন উপজেলার উত্তর তজুমুদ্দিন-সৈয়দ আশুলিয়া পয়েন্ট এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লতাচাপলী পয়েন্টে ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ জলসীমার জেলাগুলো হলো- চাঁদপুর, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, শরীয়তপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ঢাকা, মাদারীপুর, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, জামালপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, মানিকগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, মুন্সীগঞ্জ, খুলনা, সাতক্ষীরা, কুষ্টিয়া, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, পাবনা, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা ও গোপালগঞ্জ।

তবে মৎস্য বিভাগের গবেষণা অনুযায়ী ইলিশের মূল উৎপাদন কেন্দ্র হলো- চাঁদপুর, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী ও পিরোজপুর জেলা সংলগ্ন নদ-নদীগুলো। ইলিশের সবক`টি অভয়াশ্রম এ জেলা সংলগ্ন নদীগুলেকে ঘিরে। তাই ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা কার্যকরে বরিশাল বিভাগ ও চাঁদপুর জেলাকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে মৎস্য অধিদপ্তর।

আর করিম চৌধুরী/এসজিএন


newssbna-ad
newssbna-ad
ওয়েব সাইটে প্রকাশিত কোন প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও মতামত এর জন্য সম্পাদক কোন ভাবে দায়ী নন