বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন

নির্বাচনি এলাকায় সেনাবাহিনী ও বিজিবি মোতায়েন হবে—ইসি সচিব

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ

বিএনএ, ঢাকা: ভোটের কয়েকদিন আগে থেকেই নির্বাচনি এলাকায় স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে সেনাবাহিনী ও বিজিবি মোতায়েন করা হবে বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে কমিশনের পক্ষ থেকে সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের বিফ্রিং অনুষ্ঠানে হেলালুদ্দিন  আরও বলেন,  রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সংলাপের ফলে নির্বাচনি পরিবেশ সুন্দর হয়েছে।দায়িত্বপালনে কোন প্রকার শিথিলতা বরদাশত করা হবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন তিনি।

ইসি সচিব বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ আর পেছানো হবে না। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ফলাফল গেজেট প্রকাশ, উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠানের মতো কর্মযজ্ঞ রয়েছে। এছাড়া বিশ্ব ইজতেমা হবে জানুয়ারিতে। সেখানে ৩০ থেকে ৪০ লাখ মানুষের সমাগম হবে। মোতায়েন থাকবে লক্ষাধিক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তাই ৩০ ডিসেম্বরের পর নির্বাচন পেছানোর আর কোনো সুযোগ নেই।

 

তিনি বলেন,বিএনপি ও আওয়ামী লীগ ইতোমধ্যে কাদের সঙ্গে জোট করে নির্বাচন করবে তা জানিয়েছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টও জানিয়েছে। এক্ষেত্রে আইনে যেভাবে আছে, সেভাবে তারা প্রতীক পাবে। আর অনিবন্ধিত দল যেগগুলো আছে, তাদের যে দল প্রতীক দেবে সে অনুযায়ী ভোটে অংশ নেবে।

হেলালুদ্দিন বলেন, বিদেশী পর্যটকদের সব সময়  স্বাগত জানানো হয়।এবারও সেই উদ্যোগটা আছে। নির্বাচন কমিশন একটি স্বাধীন ও সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান উল্লেখ করে তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলগুলো স্টেকহোল্ডার হিসেবে পরামর্শ দেয়।

 

আর করিম চৌধুরী,এসজিএন

 


newssbna-ad
newssbna-ad
ওয়েব সাইটে প্রকাশিত কোন প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও মতামত এর জন্য সম্পাদক কোন ভাবে দায়ী নন