বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

‘ধর্ম শিখতে গেলে ধর্মগুরুর প্রয়োজন’

'ধর্ম শিখতে গেলে ধর্মগুরুর প্রয়োজন'

বিএনএ,লোহাগাড়া(চট্টগ্রাম):  ৪ ডিসেম্বর ২০১৮ইং মঙ্গলবার বাদে আসর হতে শাহ্ সাহেব কেবলা চুনতী কর্তৃক প্রবর্তিত ১৯ দিনব্যাপী সীরতুন্নবী (স.)’র ১৬তম দিন চট্টগ্রাম লোহাগাড়া চুনতীস্থ শাহ্ মনজিল সীরত ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়। ছদরে মাহফিল ছিলেন চট্টগ্রাম সাতকানিয়ার সোনাকানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নূর আহমদ।

চুনতি হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা হাফিজুল হক নিজামী ও মুহাদ্দিস ফারুক হোসাইন এর যৌথ সঞ্চালনায় আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লোহাগাড়া চুনতী হাকিমিয়া কামিল মাদরাসার প্রধান মুহাদ্দিস আলহাজ্ব মাওলানা মুহাম্মদ শাহে আলম, ঢাকা টঙ্গী ঝিনু মার্কেট পাগাড় শাহী জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মুফতি মাওলানা আবদুস সালাম, চট্টগ্রাম আগ্রাবাদ মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্ব মাওলানা জাফর সাদেক মিয়াজী। সীরতুন্নবী (স.) মাহফিলের মোতোয়াল্লী কমিটির সভাপতি শাহজাদা হাফিজুল ইসলাম আবুল কালাম আজাদ, শাহাজাদা আবদুল মালেক ইবনে দিনার নাজাত, শাহাজাদা তৈয়বুল হক বেদার।

উক্ত মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, মুহাম্মদ মিজানুল করিম, হোসাইন মুহাম্মদ সাঈদী, মুহাম্মদ সাঈদ সোহরাব তানবীর প্রমূখ। আলোচকগণ বলেন, ধর্ম মানুষকে ন্যায়পরায়ণতা শিখায় অতএব ধর্মকে ব্যক্তিভাবে ধরে রাখা খুবই প্রয়োজন। এ ধর্মকে শক্তভাবে, সঠিকভাবে পালন করার জন্য আল্লাহর নির্দেশ মোতাবেক সীরাতুল মোস্তাকীমের পথ তালাশ করা আল্লাহর নির্দেশ। এ পথে যারা আছেন তাদের পদাংক অনুসরণ করা ছাড়া, এটা পাওয়া যাবে না। প্রত্যেক কিছু জানতে গেলে একজন উস্তাদ লাগে। অতএব ধর্ম শিখতে গেলে ধর্মগুরুর প্রয়োজন। এ ধর্মগুরুর কদমে অতীব আদবের সাথে জীবন যাপন করতে হয়। আর অন্তর দিয়ে বিশ্বাস করতে হবে। অন্তরের আদব নেই, বিশ্বাসও নেই। তাহলে জীবনভর পীরের খেদমতে থাকলেও কোন লাভ হবে না। পীরের হুকুম মোতাবেক ধর্মকর্ম পালন ছাড়া অন্তরের ভিতরের ময়লা পরিষ্কার হবে না।


newssbna-ad
newssbna-ad
ওয়েব সাইটে প্রকাশিত কোন প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও মতামত এর জন্য সম্পাদক কোন ভাবে দায়ী নন