সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ০২:১৩ অপরাহ্ন

নগরীতে শুরু হয়েছে চারদিন ব্যাপী আবাসন মেলা


নিউজ বিএনএ ডটকম,চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীতে শুরু হয়েছে ১২তম আবাসন মেলা। চারদিনব্যাপী এ মেলা চলবে আগামী রোববার পর্যন্ত।

বৃহস্পতিবার(১৪ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর পাঁচ তারকা হোটেল রেসিন ব্লু-তে  এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

সে সময় সে সময় উপস্থিত ছিলেন, রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আলামিন,  ভাইস প্রেসিডেন্ট  ও ফেয়ার স্ট্যান্ডিং কমিটির কো-চেয়ারম্যান কামাল মাহমুদ এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী।

রিয়েল এস্টেট এ-হাউজিং এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) এর আয়োজনে এবারের মেলায় ৭৬টি স্টলে ৫ হাজার ফ্ল্যাট ও ২ হাজারের অধিক প্লট নিয়ে হাজির হয়েছে ৫৬টি আবাসন প্রতিষ্ঠান।ক্রেতাদের সাধ ও সাধ্যের মধ্যে মনের মত ফ্ল্যাট বা প্লট খুঁজে দেয়াই এ মেলার লক্ষ্য।

প্রতিদিন সকাল দশটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত ক্রেতা-দর্শনার্থীরা মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন। এতে দু’ধরণের প্রবেশমূল্য রাখা হয়েছে। সিঙ্গেল প্রবেশমূল্য ৫০ টাকা ও মাল্টিপল প্রবেশমূল্য ১০০ টাকা। মাল্টিপল টিকিট দিয়ে মেলায় চারবার প্রবেশ করা যাবে।

এদিকে মেলায় আগত ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের জন্য লটারির মাধ্যমে প্রতিদিন আকর্ষণীয় পুরস্কার দেয়া হবে।

এছাড়া ১৫ মার্চ শুক্রবার মেলা চলাকালীন সকাল নয়টায় শিশুদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। এতে ২য় শ্রেণী থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে।

এ বিষয়ে রিহ্যাবের চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী জানান, রিহ্যাব বন্দর নগরীর চট্টগ্রামবাসীর জন্য নান্দনিক ও পরিকল্পিত নগরায়ন রূপান্তরের পাশাপাশি নিরাপদ বিনিয়োগ নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। নগরবাসীর আবাসনের পাশাপাশি চট্টগ্রামে আসা পর্যটকদের আবাসন নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে রিহ্যাব। আবাসন মেলার মাধ্যমে ক্রেতারা তাদের পছন্দের ও সাধ্যের মধ্যে ফ্ল্যাট-প্লট খুঁজে নিতে পারবেন।

মেলায় আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বিল্ডিং ম্যাটেরিয়ালসহ কয়েকটি লিংকেজ প্রতিষ্ঠানকে অংশগ্রহণ করার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে।

রিহ্যাবের চট্টগ্রাম রিজিওনাল কমিটির পরিচালক আব্দুল গাফার মিয়াজী জানান, রিহ্যাব প্রতিবছর মেলার আয়োজন করে। তবে এবার মেলার ভিন্নতা রয়েছে। এবার মেলায় শেষের দিন (১৭ মার্চ) বেলা ১১টায় মেলা প্রাঙ্গণে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উৎযাপন করা হবে। দিবসটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ৬৩ জন পথশিশুকে এক মাসের খাবারের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে।

প্রতিবেদক: মুহাম্মদ মহরম হোসাইন/আর করিম চৌধুরী

 

 



newssbna-ad
newssbna-ad
ওয়েব সাইটে প্রকাশিত কোন প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও মতামত এর জন্য সম্পাদক কোন ভাবে দায়ী নন