শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন

চট্টগ্রামের সর্ব বৃহৎ রেষ্টুরেন্ট আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকায়:01716430580

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো


  এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ।

তাপসনিশ্বাসবায়ে   মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে,

     বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক॥

যাক পুরাতন স্মৃতি,   যাক ভুলে-যাওয়া গীতি,

     অশ্রুবাষ্প সুদূরে মিলাক॥

     মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা,

     অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।

রসের আবেশরাশি   শুষ্ক করি দাও আসি,

     আনো আনো আনো তব প্রলয়ের শাঁখ।

     মায়ার কুজ্ঝটিজাল যাক দূরে যাক॥

এসো হে বৈশাখ, এসো এসো। বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ সমাগত। পহেলা বৈশাখ বাঙালির প্রাণের উৎসব। কূপমণ্ডুকতা, কুসংস্কার, জীর্ণতা ঝেড়ে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার দিন। রবীন্দ্রনাথের এ অবিস্মরণীয় গানটি চিরদিন নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে এসেছে। প্রলয়ের মধ্যেও সৃষ্টির নতুন আকাঙ্ক্ষা জাগিয়ে তুলেছেন তিনি। পুরনো সব কিছুকে ভেঙ্গেচুড়ে জঞ্জালে পরিণত করে চুরমার করার অভিপ্রায়ের মধ্যে নতুন সৃষ্টির উন্মাদনা জেগে উঠেছে বিশ্বকবির বৈশাখী বন্দনায়। সব পুরনো আবর্জনাকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করার পক্ষে তিনি।

বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতি ও গর্বিত ঐতিহ্যের রূপময় ছটায় বৈশাখকে এভাবেই ধরাতলে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন আমাদের কবিকূল। তাদের কিরণে হাসি ছড়িয়ে পুরনো বছরের সব গ্লানি, অপ্রাপ্তি, বেদনা ভুলে নব আনন্দে আজ জাগবে গোটা জাতি। পহেলা বৈশাখ। একটি নতুন দিন, একটি নতুন বছরের শুভ সূচনা। শুভ নববর্ষ।

চৈত্রের রুদ্র দিনের পরিসমাপ্তি শেষে আজ বাংলার ঘরে ঘরে নতুন বছরকে আবাহন জানাবে সব বয়সের মানুষ। বাঙালির জীবনের সবচেয়ে আনন্দের এবং মহিমান্বিত দিন এই পহেলা বৈশাখ। আজ নব আলোর কিরণশিখা শুধু প্রকৃতিকে নয়, রঞ্জিত করে নবরূপে সাজিয়ে যাবে প্রত্যেক বাঙালির হৃদকোণও। নব আলোর শিখায় প্রজ্জ্বলিত হয়ে শুরু হবে আগামী দিনের পথচলা।

বছরের প্রথম দিনে আজ নতুন নতুন স্বপ্ন বুনবে বাংলার কৃষক। হালখাতা খুলবে ব্যবসায়ীরা। সরকারি ছুটির দিনে রাজধানীসহ সারাদেশে একযোগে চলবে লোকজ ঐতিহ্যের নানা উৎসব অনুষ্ঠান। লোক ঐতিহ্যের প্রধান শক্তি অসাম্প্রদায়িকতা ও মানবিক মূল্যবোধের সাম্য সুন্দর শান্তির বাণী নিয়ে এসেছে বৈশাখ। আজ হাজার বছরের সমৃদ্ধ সংস্কৃতির আলোয় নতুন করে জ্বলে উঠবে বাঙালি। অগ্নিশিখা জ্বালিয়ে রাখার অনুপ্রেরণা গ্রহণ করবে। দ্রোহের আগুনে শানিত হবে।

হাজার বছরের ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় আজ বাঙালি হারিয়ে যাবে বাঁধভাঙা উল্লাসে। উৎসব, আনন্দ আর উচ্ছ্বাসে ভরে যাবে বাংলার মাঠ–ঘাট–প্রান্তর। আজকের সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে পুরনো সব জরা গ্লানিকে মুছে ফেলে সকলে গেয়ে উঠবে নতুন দিনের গান। বৈশাখী উৎসবের মধ্যে দিয়ে যেন বাঙালি তার শেকড় খুঁজে পায়।

সম্পাদনায় : আবির হাসান।



newssbna-ad

The Village Restaurant And Party Centre Finlay house ,Ground floor (oposite CGO building 11) Agrabad C/A Or Call 0176588888

ওয়েব সাইটে প্রকাশিত কোন প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও মতামত এর জন্য সম্পাদক কোন ভাবে দায়ী নন